205

ত্বকী : শহীদরে ময়নাতদন্তকারী নজিইে শহীদ হলো

যতীন সরকার

‘একজন শহীদরে ময়নাতদন্ত’ করতে গয়িে যে কশিোর-কবরি লখেনি থকেে নঃিসৃত হয়ছেলি একটি অনবদ্য কবতিা, তারই প্রাণহীন দহে নয়িইে অচরিইে হবে ময়নাতদন্ত,- এমন ভাবনা কি সইে কশিোর-কবি তানভীর মুহম্মদ ত্বকীর মগ্নচতৈন্যইে নহিতি ছলি?
না। মগ্নচতৈন্যকে উপজীব্য করে গড়ে ওঠা ফ্রয়ডেীয় বা উত্তর-ফ্রয়ডেীয় কোনো ঘরানার মনস্তত্ত¡েই আমার বশ্বিাস নইে। দ্বান্দ্বকি বস্তুবাদভত্তিকি মনস্তত্ত¡ের অনুসরণইে আমি বশ্বিাস করি য-ে মানুষ অবচতেনরে হাতরে পুতুল নয়, পরপর্িাশ্ব থকেে আনুষ্ঠানকি ও অনানুষ্ঠানকি শক্ষিাসূত্রে প্রাপ্ত সামাজকি চতৈন্যরে প্রণোদনাতইে র্কমে প্রবৃত্ত হয়। তবে একই রকম পরপর্িাশ্বে অবস্থানকারী সকল মানুষ যে একই রকম চন্তিা ও র্কমরে অনুসারী হয় না, সে কথাও সত্য। মানুষরে ব্যক্তত্বিরে ভন্নি ভন্নি টাইপ অভন্নি পরবিশেওে ভন্নি ভন্নি রূপ পরগ্রিহ কর।ে দ্বা›দ্বিক বস্তুবাদভত্তিকি মনোবজ্ঞিানরে প্রতষ্ঠিাতা ইভান পত্রেভচি পাভলভ ব্যক্তত্বিরে যসেব ‘টাইপ’ ও ‘সাব-টাইপ’ এর কথা বলছেনে, সে সব নয়িে আলোচনার অবকাশ এখানে নইে। কবেল মহাপ্রতভিাধর মানুষ, যাঁদরে সংখ্যা কোটকিে গোটকিও নয়, তমেন মানুষ নয়িে পাভলভ অনুসারী মনোবজ্ঞিানীরা যসেব কথা বলছেনে, ত্বকীর কথা ভাবতে গয়িে সসেবই আমার মনে ভড়ি করে আসছ।ে আঠারো বছর বয়স র্পূণ হওয়ার আগইে যে ত্বকীকে সারময়ে-প্রতমি ঘাতকরে হাতে প্রাণ বর্সিজন দতিে হলো, সইে ত্বকী যে ছলি একান্ত বরিলসংখ্যক মহাপ্রতভিাধরদরেই একজন- সে ব্যাপারে আমার মনে সামান্যতম সন্দহেও নইে। প্রতভিার বচিারে ত্বকীর তুল্য ববিচেতি হতে পার,ে আমার পরচিতিজনদরে মধ্যে এমন কাউকইে আমি খুঁজে পাইন।ি
বজ্ঞিানী-র্দাশনকিরাও প্রতভিাবান, শল্পিী-কবরিাও প্রতভিাবান; কন্তিু এই দু’ধরনরে মানুষরে প্রতভিা দু’রকম। পাভলভ মতাবলম্বী মনোবজ্ঞিানীদরে মতে : শল্পিী-কবদিরে মস্তষ্কিে থাকে ‘প্রথম সাংকতেকি তন্ত্ররে’ প্রাধান্য, আর বজ্ঞিানী-র্দাশনকিদরে মস্তষ্কিে প্রাধান্য ‘দ্বতিীয় সাংকতেকি তন্ত্ররে’। র্অথাৎ কব-িশল্পিীদরে মস্তষ্কিে অতি সহজইে প্রত্যক্ষ বাস্তবরে প্রতফিলন পড়ে এবং এর উদ্দীপনায় সাড়া দয়িইে রচতি হয় তাঁদরে শল্পির্কম। অন্যদকি,ে বজ্ঞিানী-র্দাশনকিরা প্রত্যক্ষ বাস্তবরেও বচিার-বশ্লিষেণ ও র্পযবক্ষেণ-পরীক্ষণরে মধ্য দয়িে তার সত্যতা যাচাই করে ননে, বচিারশীলতাই তাঁদরে অত্যাজ্য বশৈষ্ট্যি। এক কথায় বলা যায় ঃ কব-িশল্পিীরা মূলত সংবদেনশীল আর বজ্ঞিানী-র্দাশনকিরা বচিারশীল। কব-িশল্পিীর তীব্র সংবদেনশীলতা ও বজ্ঞিানী-র্দাশনকিরে তীক্ষè বচিারশীলতাকে একই আধারে যাঁরা ধারণ করনে, গড়পড়তা প্রতভিাবানদরে একরখৈকিতার র্ঊধ্বে যাঁদরে অবস্থান, তাঁরাই হলনে মহাপ্রতভিাবান।
এরকম সংবদেনশীলতা ও বচিারশীলতার ঐকত্রকি উপস্থতিি যে ছলি ত্বকীর চতৈন্য,ে তার মস্তষ্কি কোষে প্রথম ও দ্বতিীয় সাংকতেকি তন্ত্র যে সক্রয়ি ছলি সমান তীব্রতা ও তীক্ষèতা নয়ি,ে তার স্বল্পস্থায়ী জীবনইে এর প্রমাণ বধিৃত হয়ে আছ।ে বস্তুবজ্ঞিানরে তুখোর ছাত্র ত্বকী, শল্পি-সাহত্যি-সংস্কৃতরি র্সবক্ষত্রেওে বচিরণ করছেে অসাধারণ কুশলতার সঙ্গ।ে সইে ত্বকীর সত্তার গভীরে যে সংলগ্ন হয়ছেলি মহাপ্রতভিার বীজ, সইে বীজকে লালতি-র্বধতি-পুষ্পতি করার প্রয়াসরে ভতের দয়িইে যে সে বড়েে উঠছলি, সে সত্যকে অস্বীকার করা তো দবিান্ধতারই পরচিয় দওেয়া। ত্বকী নহিত হওয়ার পর তার ১৮তম জন্মদনিে (৫ অক্টোবর, ২০১৩) তার বাবা রফউির রাব্বি ও মা রওনক রহোনা যে স্মৃতচিারণ করছেলিনে, সটেি পাঠ করলে সকলইে যমেন বদেনাবধিুর হবনে, তমেনি চমৎকৃতও হয়ে যাবনে। অতি স্বল্পস্থায়ী জীবনে কত বভিন্নি বষিয়ে কত গভীরভাবইে না অনুশীলন করছেলি ত্বকী। [দ্রষ্টব্য : ‘প্রথম আলো’র ক্রোড়পত্র ‘ছুটরি দনি’ে ৫ অক্টোবর, ২০১৩]
কশিোর ত্বকীর প্রাত্যহকি জীবনাচরণ দখেে তাকে ‘অর্ন্তবৃত’ (ওঘঞজঙঠঊজঞ) চরত্রিসম্পন্ন বলইে মনে হতো। কন্তিু প্রকৃতপক্ষে সে ছলি খুবই প্রাণচঞ্চল ও তীক্ষèধী এক কশিোর। ছলি পরপর্িাশ্ব সচতেন। বরিূপ পরপর্িাশ্বকে বদলে দবোর তাগদিে অনুক্ষণ সে তাড়তি হতো। নজিরে সচতেন র্কমকাÐরে ওপর সে দৃঢ় বশ্বিাস পোষণ করতো, কব-িকশিোর সুকান্তরে মতোই ‘বশ্বিকে বাসযোগ্য’ রূপে গড়ে তোলার প্রত্যয় ছলি তার সমগ্র সত্তায় জড়তি-মশ্রিতি। প্রাণচাঞ্চল্য তাকে উর্ন্মাগগামতিার দকিে ঠলেে দয়েন,ি বরং জীবনসাধনায় সে ছলি একান্ত স্থতিধী। তাই সে অনায়াসে বলতে পরেছেলি-
ঘরে ঘরে জ্বলে উঠবে
জ্ঞান-প্রীতরি আলো,
থাকবে না হংিসা বদ্বিষে
মানুষে সাম্য হবে
সকলইে এক হবে
সকলরে জ্ঞান হবে
আকাশ চ‚ড়ায়। [সাম্য]
আবার জীবনানন্দরে মতোই মৃত্যুর পরে স্বদশে প্রত্যার্বতনরে ভাবনা হৃদয়ে ধারণ করওে জীবনানন্দীয় ভাববলয়কে অনকে দূর অতক্রিম করে গছেে স।ে ‘খোদার আসন আরশ ছদেয়িা’ ওঠার নজরুলীয় বদ্রিোহরেই নবতন ও স্বকীয় রূপায়ণ ঘটানোর প্রত্যয়-দৃপ্ত উচ্চারণ ছলি তার কণ্ঠ-ে
আরও একবার আমি মানুষ হয়ে মরব
উত্থতি হতে নষ্কিলঙ্ক ফরেশেতাদরে পাশ-ে
তবে তা থকেওে উন্নীত হতে হবে আমাকে কারণ
ঈশ্বর ছাড়া সকলইে তো ধ্বংস হবে
যদেনি আমার র্স্বগ পবত্রি আত্মার বলি দবি,
আমি হব তাই,
যা ছলি না কখনও কারো কল্পনা চন্তিায়Ñ
আমার যনে বলিুপ্তি ঘট,ে কারণ
অনস্তত্বি ইন্দ্রয়িে সুর তুলে
আমি তার কাছে ফরিবÑ [প্রত্যার্বতন]

মহাপ্রতভিার অধকিারী তানভীর মুহাম্মদ ত্বকীর কথা স্থগতি রখেে আমি এখন স্মরণ করছি ছোট্ট শশিু ত্বকীর সইে মায়ামাখানো মুখট।ি বহুবার আমি নারায়ণগঞ্জে গয়িছেি এবং প্রতবিার আতথ্যি গ্রহণ করছেি ত্বকীদরে বাড়তি।ে না। ‘আতথ্যি গ্রহণ’Ñএর মতো ভারি শব্দ এক্ষত্রেে মোটইে প্রযোজ্য হতে পারে না। এই বাড়টিি তো হয়ে উঠছেলি আমারই বাড়।ি আমার কন্যা সুদীপ্তাকওে সখোনে নয়িে গয়িছে।ি সুদীপ্তার একান্ত আদররে ছোট ভাই হয়ে উঠছেলি ত্বকী ও সাকি দু’জনই। ত্বকীকে তার বাবা আমাদরে ময়মনসংিহরে বাসায়ও নয়িে গয়িছেলিনে। আমার স্ত্রীও ত্বকীকে খুব আদর করতনে।
ত্বকীর র্মমান্তকি মৃত্যুর খবরটি সুদীপ্তাই তার র্কমস্থল শরেপুর থকেে ফোনে আমাকে জানয়িছেলি। একটি ছোটভাইকে হারানোর অসহনীয় বদেনাই ধ্বনতি হয়ছেলি তার র্আত চৎিকার।ে আমি একবোরইে মূক হয়ে গয়িছেলিাম। ত্বকীর মা রওনক রহোনাকে (যে আমার একান্ত ¯œেহরে ছোট বোন ‘বুলবুল’ি) সান্ত¡না দয়িে ফোন করার কথা আমি ভাবতইে পারনি।ি আজও, বশে কছিুদনি চলে যাবার পরও, সইে বোনটরি সঙ্গে যোগাযোগ করার সাহস পাচ্ছি না। এরকমটইি আমার স্বভাব। সভায় দাঁড়য়িে আমি অনবরত বকবক করতে পার,ি নারায়ণগঞ্জওে তো বহুবারই তমেনটি করছে।ি অথচ শোকে সান্ত¡না দওেয়ার ভাষা এই বুড়ো বয়সওে আমার আয়ত্ত হলো না। সান্ত¡নার কোনো ভাষা আদৌ আছে ক?ি আমি জানি না।
যদি সুস্থ থাকতাম, তাহলে নারায়ণগঞ্জে ছুটে গয়িে শোকাহতা বোনটরি গলা ধরে কাঁদতে পারতাম। কন্তিু দুরারোগ্য ব্যাধতিে গৃহবন্দি হয়ে থাকায় তা-ও পারলাম না।

‘১৯৯৫-এর ৫ অক্টোবর বকিলেে ত্বকীল জন্ম। দনিটি ছলি বজিয়া দশমী। মৃত্যু ২০১৩-এর ৬ র্মাচ। ঘাতকরে জবানবন্দি থকেে জানা যায়, ৬ র্মাচ রাত ১১টায়ই ত্বকীর মৃত্যু হয়ছে।ে দনিটি ছলি ফাল্গুনরে ২২। ফাল্গুনরে পথকি ত্বকী। অবশষেে ফাল্গুনরে আগুনরে ঢউে বুকরে কান্নার সঙ্গে এসে মশিে গলে, আরকে ফাল্গুন’ে-
ত্বকীর বাবা রফউির রাব্বি লখিতি স্মৃতচিারণটরি অন্তমি বাক্যনচিয়। আঠারোতম জন্মদনিরে আগইে ত্বকীকে চলে যতেে হলো ‘আঠারোর দুঃসাহস’ সঙ্গে নয়ি।ে মনে পড়ে সুকান্তরে কথা- ‘আঠারো বছর বয়স কী দুঃসহ / র্স্পধায় নয়ে মাথা তুলবার ঝুঁক।ি / আঠারো বছর বয়সইে অহরহ / বরিাট দুঃসাহসরো দয়ে যে উঁক।ি’
নারায়ণগঞ্জরে কতকগুলো ঘৃণ্য কুকুর ত্বকীর এই দুঃসাহসকে সহ্য করতে পারনে।ি ত্বকীর বাবা রফউির রাব্বরি সুস্থ সংস্কৃতর্চিচা ও সংস্কৃত-িআন্দোলনরে নতেৃত্বদান এই কুকুরদরে হন্যে করে তুলছেলি। এই কুকুরদরে সর্ম্পকে সচতেন হয়ইে ত্বকী লখিছেলিÑ
এক ঝাঁক কুকুর
একটা কুকুর
র্গজন করে ওঠে
এক ঝাঁক কুকুর
দৌড়ে এলো কাছে
দখেল একটা শকিার
ঝাঁপয়িে পড়ল
তাঁর কাঁধে
শষে করে দলি
… প্রাণ! [কুকুর]
তব,ে আমরা তো জান,ি নারায়ণগঞ্জে শুধু কুকুররাই বাস করে না। সখোনে আছে অগণ্য মানুষ- প্রাণবান মানুষ, শল্পিী মানুষ, সংস্কৃতমিান মানুষ, শ্রমকি মানুষ, বপ্লিবী মানুষ, জোটবদ্ধ মানুষ, প্রকৃত মানুষ। এই মানুষদরে হাতইে আছে ‘যমেন কুকুর তমেন মুগুর’। এই মুগুর দয়িইে নারায়ণগঞ্জরে মানুষরে হাতে সূচতি হচ্ছে কুকুর উৎখাতরে প্রক্রয়িা। সারা দশেই হবে কুকুরমুক্ত। কোনো কুকুর শাবকরেও অস্তত্বি থাকবে না, সবগুলোই পথরে পাশরে র্নদমায় ‘সংকোচে সত্রাসে যাবে মশি’ে।
বজিয়া দশমীতে জন্মছেলি য-েত্বকী, তার বজিয়-নশিান তো উড়তে থাকবে অনাগত কালওে। ত্বকীর আত্মদান বৃথা যাবে না, বৃথা যতেে পারে না।

লখেক : শক্ষিাবদি, লখেক